Published on

আমার স্ত্রীও আমাকে ছেড়ে চলে যায়...

hero image

আমার বয়স যখন ১২, তখন থেকেই আমার পর্ন দেখা শুরু। পরিচয়টা করিয়ে দেয় আমার সৎ মা। ১২ বছর বয়সে সে-ই আমাকে প্রথম পর্ন দেখায়। তখন থেকেই আমি তার রুম থেকে চুরি করে এনে একাকী পর্ন দেখতাম।

পাঁচ বছরে মাথায় পর্নের জন্য আমি মোটামুটি পাগল হয়ে যাই। একজন মুভি-সেলার ছিলো, যে নতুন কোনো পর্ন আসলেই সেটা বাজারে ছেড়ে দিতো। আমি তার কাছে আমার নাম রেজিস্ট্রেশন করলাম। এমন দিনও কেটেছে, যখন আমি একসাথে ১২ টা ডিভিডি কিনেছি এবং সকাল থেকে রাত পর্যন্ত একটানা পর্ন দেখেছি।

আস্তে আস্তে শুরু করি হস্তমৈথুন। ততদিনে এক পতিতার কাছে খুলে যায় আমার বাইরের মুখোশ। আমি ঘনিষ্ঠ হই তার সাথে। ভাগ্যের নির্মম পরিহাস! আমার STD ধরা পড়ে। [https://wb.md/3pwpcPf] দীর্ঘসময় আমাকে আইসোলেশনে থাকতে হয়েছে। নিজের গুপ্তাঙ্গ হারাতে হারাতে বেঁচে গেলাম আমি।

সুস্থ হওয়ার পরপরই আমি আবার পর্ন দেখা শুরু করি। এর ফলে আস্তে আস্তে কিছু জিনিসের সম্মুখীন হলাম। সেগুলো আপনাদের বলছি -

== ২৬-২৮ বছরের মধ্যেই আমি মানসিকভাবে পুরোপুরি বিধ্বস্ত হয়ে যাই। একটা অবুঝ শিশুতে পরিণত হই আমি। সাধারন নিয়ম-কানুন, অনুশাসনও আমার মাথায় ধরতোনা।

== ৩০ বছর বয়সে আমি বিয়ে করি। এমনকি বিয়ের পরেও আমি আমার স্ত্রীর সাথে পর্ন দেখেছি,, হস্তমৈথুন করেছি। ধীরে ধীরে আমার পুরুষত্ব হারিয়ে ফেলতে শুরু করি। এরপর দ্রুত বীর্যপাত।

ততদিনে ঈমানের নূর আমি হারিয়ে বসেছি। অন্তরে আল্লাহর ভয়ের ছিটেফোটাও ছিলোনা। আমি নামাজ পড়তাম না। অপরাধ আর জুলুমের কাছে নিজেকে খুব বেশীই সঁপে দিয়েছিলাম আমি। গুনাহগুলো সব স্বাভাবিক হতে শুরু করে। আমিও আস্তে আস্তে হারিয়ে ফেলি সব।

== আমার স্ত্রীও আমাকে ছেড়ে চলে যায়। তার মতে, আমি মানসিক ভারসাম্যহীন। তার কথায় অবশ্য যুক্তি আছে, কারণ মাঝেমাঝেই আমার হ্যালুসিনেশন হতো [https://bit.ly/36xzGX0]। মানসিক রোগের একটি লক্ষণ এটি।

== বারবার তাওবাহ করেছি আমি। কিন্তু প্রত্যেকবারই একমাস বা তার কিছুদিন পরেই আমি আবার ফিরে যেতাম আগের দুনিয়ায়।

সিগারেট কিংবা ড্রাগস ছাড়া আমার জন্য এতটা কষ্টকর ছিলোনা। কিন্তু পর্ন ছাড়া আমার জন্য রীতিমতো অসম্ভব ছিলো।

আমি দুয়া করি, আল্লাহ আমাকে এবং আমার মতো আসক্তদেরকে এই কলুষতা থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার তাওফিক দান করুক, এবং এই নোংরামি থেকে নিজেকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য মজবুত ঈমান দান করুক।

== আমার দৃষ্টিশক্তির অবনতি হতে শুরু করল। ২২ বছর বয়সেই আমাকে চশমা পরতে হয়। একসময় আমার চোখ দিয়ে দুধের মতো সাদা তরল বের হতে লাগলো।

== কুরআন মুখস্ত করতাম একসময় আমি। মুহুর্তের মধ্যেই সব হারিয়ে ফেলি আমি।

== আমার স্মৃতিশক্তি লোপ পেতে শুরু করে। আমি ছিলাম ক্লাসের উজ্জ্বল, মেধাবী ছাত্র। অথচ আমি হয়ে যাই গাধা। আমার চিন্তা চেতনা হয়ে পড়ে পাগলাটে, দূষিত।

আপনাদের সাথে আমার গল্প শেয়ার করার কারন হচ্ছে, আমি চাইনা আপনারা আমার মতো শিকার হন। জীবনের প্রতিটা সেকেন্ড আমি পস্তাচ্ছি। এবং আমি কখনোই আমার সেই সৎ মা’কে ক্ষমা করবোনা যে আমাকে এই জগতের সাথে পরিচয় করিয়েছে।

আপনি যদি ইতোমধ্যেই পর্ন দেখে থাকেন, তাহলে এখনই বন্ধ করুন। অন্যথায়, এটি আপনার যে ক্ষতি করবে আপনি তা কখনোই ফেরাতে পারবেননা। আর আপনি যদি এখনও না দেখে থাকেন, তাহলে পালিয়ে বাঁচুন এর থেকে। কোকেইন বা ড্রাগসের চেয়েও বেশী মারাত্মক এই পর্ন।

.…………………………………………………………………

Taemin Muqassam ভাইয়ের পোস্টের সঙ্গে সংযুক্ত ইমেজগুলোর বাংলা অনুবাদ। মূল পোস্ট পড়তে ক্লিক করুন এখানে- বিষ