শহুরে মুরগীর কুঠির জীবন চাওয়া-পাওয়া ,সাফল্য-ব্যর্থতার সংজ্ঞা পালটে দিয়েছে । কর্ম ব্যস্ত জীবনের চাপে পিষ্ট হয়ে আমাদের হাসফাস অবস্থা । ভোগবাদী সমাজ সুকুমার বৃত্তি গুলো  ধ্বংস করে দিচ্ছে । নগ্নতা, অশ্লীলতা, অনাচারকে সাদরে বরণ করে নেওয়ার জন্য   ড্রয়িংরুমে হাজার হাজার টাকা দিয়ে কেনা “বোকা বাক্সটা”তো সাজিয়েই রেখেছিই । এরকম এক ভয়াবহ অস্থির  সমাজে তরুণরা যে নানা বদ অভ্যাসে অভ্যস্ত হয়ে যাবে সেটাই স্বাভাবিক । আমাদের তরুণরা যত রকম বদ অভ্যাসে অভ্যস্ত হয়ে গেছে তার মধ্যে বেশ ভয়াবহ একটা হল হস্তমৈথুন  ।

তরুণদের ছি ছি করে লাভ নেই, গাধার সামনে মুলো ঝুলোলে  এরকমই হয় । অনেক তরুণ আছে যারা এই    থেকে বের হয়ে আসতে চায় । কিন্তু “ভালবাসার  মোড়কে কাম বেচা” এই সমাজে সেটা প্রায় অসম্ভব । আবার এই পঁচে যাওয়া সমাজটাও তো পরিবর্তিত হচ্ছেনা। তাহলে কীভাবে কি ? সারা জীবনই কি তরুণেরা হস্তমৈথুনের দুষ্টচক্রের মধ্যে বন্দী হয়েই থাকবে? মাথা কুটে কুটে দিন পার করবে?

অসম্ভবকে সম্ভব করাই মানুষের কাজ । চলুন দেখি কীভাবে বের হয়ে আসবেন এই ভয়ঙ্কর দুষ্টচক্র থেকে

 

১) প্রথমেই উপলব্ধি করুন এটা আপনার জন্য ভাল না ।

আপনি কি  এর ক্ষতিকর দিকগুলো সম্পর্কে জানেন –

  •  হস্তমৈথুন   আপনাকে দীর্ঘ মেয়াদী বিষন্নতায় ভোগাবে
  • আপনাকে ভাবতে শেখাবে শুধুমাত্র এটাই আপনাকে সুখ দিতে পারে
  • দাম্পত্য জীবনে আপনি ভয়াবহ রকমের ব্যর্থ হবেন
  • এটা করার পর আপনার নিজেরই নিজেকে ঘৃণা করতে ইচ্ছা করবে । নিজের কাছে নিজেকেই দোষী দোষী বলে মনে হবে । আপনার স্বাভাবিক জীবন যাত্রায় ব্যাঘাত ঘটবে।
  • হস্তমোইথুন একপর্যায়ে আপনার প্রজনন ক্ষমতা নষ্ট করে দিতে পারে ।

এছাড়াও অতিরিক্ত হস্তমৈথুন করলে  আপনি যে সমস্যাগুলোর সম্মুখীন হবেন

  •  পিঠ এবং পিঠের নিম্নাংশে ব্যাথা
  • চুল পড়া
  • অলসতা
  • চোখের দৃষ্টি কমে যাওয়া
  • সবসময় ক্লান্তি অনুভব করা
  • স্মৃতিশক্তি কমে যাওয়া
  • আত্মবিশ্বাস কমে যাওয়া

অতিরিক্ত হস্তমৈথুন  আপনার ইজাকুলেশান টাইমকে কমিয়ে দিবে । এতে আপনার লাইফ পার্টনার অতৃপ্তিতে ভুগবেন, যা অনেক পাপের পথ খুলে দিতে পারে ।

বিস্তারিত পড়ুন চোরাবালি সিরিজে

২) হস্তমৈথুন  যে বেশ ক্ষতিকর এটা আপনি উপলব্ধি করে ফেলেছেন । তারমানে আপনি হস্তমৈথুন   থেকে রিকভারি করার প্রায় ৮০ শতাংশ কাজ করে ফেলেছনে ।   এখন আপনার কাজ হল কেন আপনি হস্তমৈথুন   করেন এই বিষয়টা বের করে ফেলা । আপনার প্রাত্যাহিক রুটিনের চুলচেরা বিশ্লেষণ করে ফেলুন; কি কি বিষয়সমূহ আপনাকে হস্তমৈথুন  করতে বাধ্য করছে ।

আপনি কি

  • প্রাত্যাহিক রুটিনে আপনি বিরক্ত হয়ে গেছেন ?
  • অধিকাংশ সময়ই একা থাকেন ?
  • হতাশ?
  •      হতাশা, দুশ্চিন্তা, ক্লান্তি,জীবনের গ্লানি,অবসাদ  দূর করার জন্য হস্তমৈথুন করেন ?
  • আপনার হাতে প্রচুর অবসর সময় এবং আপনার করার কিছুই নেই?
  • নিয়মিত পর্ন মুভি, আইটেম সং দেখেন?

৩) এবার আমরা দেখব কীভাবে হস্তমৈথুন  এর দুষ্টচক্র ভেঙ্গে বের হয়ে আসতে হবে ।

প্রথমত, আপনি  নিজের উপর ভরসা করতে শিখুন । প্রচুর পরিমানে দু’আ করুন আল্লাহ্‌র কাছে । দু’আর শক্তিকে কখনোই অবহেলা করবেন না । অনেক অনেক লোক আল্লাহ্‌র উপর ভরসা করে তাঁর কাছে দু’আ করার মাধ্যমে হস্তমৈথুন   থেকে নিজেকে রক্ষা করতে পেরেছে । কাজেই আপনি দৃঢ় সংকল্পবদ্ধ হন, আপনি হস্তমৈথুন করা ছাড়তে চান এবং আপনি অবশই সেটা পারবেন।

আপনার অভ্যাসগুলো পরিবর্তন করার চেষ্টা করুন । কোন বিষয়ে আগ্রহ থাকলে (ফটোগ্রাফি, সাইক্লিং) সেটা নিয়ে লেগে থাকার চেষ্টা করুন । হবি গ্রোআপ করার চেষ্টা করুন । ভালো, দ্বীনি ফ্রেন্ড সার্কেলের সংস্পর্শে থাকার চেষ্টা করুন ।

সবসময় মনে রাখবেন, আপনি  অবশ্যই হস্তমৈথুন করা পুরোপুরি ছেড়ে দিতে পারবেন । এবং হস্তমৈথুনের   বিরুদ্ধে এই যুদ্ধে আপনি একা নন ।

এছাড়াও যা করতে পারেন

  • জীবন কে উপভোগ করতে শিখুন
  • আপনার প্রাত্যাহিক জীবনকে যতবেশি সম্ভব কর্মব্যস্ত করে তুলুন
  • রোজা রাখতে পারেন । এটা আপনার অতিরিক্ত এনার্জি শুষে নিয়ে আপনাকে হস্তমৈথুনের হাত থেকে রক্ষা করতে পারবে (সপ্তাহে অন্তত একদিন রোজা রাখার চেষ্টা করুন । সোমবার অথবা বৃহস্পতিবার । রাসূল (সাঃ) বলেছেন,যার বিয়ে করার সামর্থ্য আছে সে যেন বিয়ে করে নেয় । আর বিয়ে করার সামর্থ্য না থাকলে সে যেন রোজা রাখে।)

আপনি যদি কতগুলো অভ্যাস বদলাতে পারেন তাহলে ইনশা আল্লাহ্‌ অবশ্যই  হস্তমৈথুন করা ছাড়তে পারবেন ।

  • সালাত আদায় করার চেষ্টা করুন। নিশ্চয়ই সালাত মানুষকে অশ্লীল ও খারাপ কাজ থেকে বিরত রাখে।
  • পর্ন মুভি দেখা বন্ধ করুন  । কম্পিউটার এমন যায়গায় রাখুন  যেখানের বসে কিছু দেখলে সবাই আপনাকে দেখতে পাবে ।
  • চোখের হেফাজত করুন। (এটা খুব খুব জরুরি)  বিভিন্ন পত্রিকার বিনোদন পেইজ, ক্রোড়পত্র পড়া থেকে  বিরত থাকুন । মিউজিক ভিডিও, ভারতীয় অশ্লীল বিনোদন থেকে নিজেকে বাঁচান ।
  • যে সময়টাতে এবং যে যায়গাটাতে আপনার মধ্যে হস্তমৈথুন করার ইচ্ছা জাগ্রত হয় সেই সময় একা একা না থেকে মানুষজনের সংস্পর্শে থাকার চেষ্টা করুন । এবং পারতপক্ষে সেই  যায়গাতে যাওয়া থেকে নিজেকে বিরত রাখুন
  • যদি গোসলখানায় এই ব্যাপারটা মাঝে মাঝেই ঘটে, তাহলে গোসলখানায় যতকম সময় থাকা সম্ভব ততকম সময় থাকুন । গোসলখানায় বিভিন্ন জটিল বিষয় নিয়ে চিন্তা করতে থাকুন । মনে মনে ম্যাথ সল্ভ করতে পারেন । ধাঁধার উত্তর খুজতে পারেন । নিজেকে যত কম সম্ভব তত কম স্পর্শ করুন
  • নিয়মিত এক্সারসাইজ করুন । জগিং করতে পারেন,সাঁতার কাটতে পারেন । বাচ্চাদের সঙ্গে খেলতে পারেন।

একটা বিষয় মাথায় রাখা খুব খুব জরুরী সেটা হল আপনি  প্রথমবারেই  হস্তমৈথুন করা ছেড়ে দিতে পারবেন না । আপনি যদি প্রত্যেকদিন হস্তমৈথুন করেন তাহলে নিজেকে টার্গেট দিন , এখন থেকে আগামী ৩ দিন আমি হস্তমৈথুন করব না । এই টার্গেট পূরন করতে পারলে নতুন টার্গেট ঠিক করুন আমি আগামী ৭ দিন হস্তমৈথুন করব না । এটা পূরন করতে পারলে আবার নতুন টার্গেট ঠিক করুন। আমি আগামী ১৪ দিন মাস্টারব্রেট করব না । এভাবে চালিয়ে যেতে থাকেন । আর হ্যাঁ প্রতিবার টার্গেট পূরন করার পর নিজেকে  পুরষ্কার  দিতে ভুলবেন না । চকোলেট খেতে পছন্দ করেন, তো বেশি বেশি চকোলেট খান । বিরিয়ানীর কথা শুনলেই জিভে জল চলে আসে , তাহলে ঘুরে আসুন বিরিয়ানির দোকান থেকে ।

আর নিজের জন্য প্রচুর পরিমাণ দু’আ করতে থাকুন ।

ইনশা আল্লাহ্‌ আপনি পারবেনই  ।

শেয়ার করুনঃ