কারিনা কাপুরকে দেখলাম টিভিতে, মেয়েদের নিরাপত্তা নিয়ে বেশ সোচ্চার । কয়েক মাস আগে তিনি বললেন যে, মুম্বাইতে সন্ধ্যা ছয়টার পর বের হওয়া, তিনি নিরাপদ মনে করেন না ।

প্রিয়াংকা চোপড়া, আমাদের সময়ের আরেকজন বলিউড ডিভা, অনেকদিন যাবত ধরেই মেয়েদের পণ্য বানানো কিংবা মেয়ে শিশুর বৈষম্যের বিরুদ্ধে কথা বলে আসছেন ।

অথচ এই দুই নায়িকার কাওকেই, সিনেমায় তাদের খোলামেলা পোশাকের ব্যাপারে আপত্তি তুলতে শোনা যায়না । অন্তত প্রিয়াংকার ক্ষেত্রে, তার ক্যারিয়ারের একটা বড় অংশ কেটেছে অর্ধনগ্ন হয়ে, উন্মত্ত কামুক পুরুষের সামনে নাচার দৃশ্যে অভিনয় করে ।

কোন সন্দেহ নেই, এই আইটেম গানগুলোতে মেয়েদের পণ্যরুপে উপস্থাপন করা হয় । আপনি কি ‘মুন্নি বদনাম’ ‘শিলা কি জাওয়ানি’ থেকে শুরু করে, ‘পাল্লু কে নিচে’ গানগুলোর কথা বুঝে শুনে বলতে পারবেন, যে কথাগুলো অশ্লীল নয় কিংবা নারীর সম্মানহানী করেনা ?

এইসব গানে ক্যাটরিনারা দেদারসে নাচবেন, আবার সমাজে নারীবাদীর মুখোশ পরে, ভদ্র সাজবেন ।

যদি এরপরেও আপনার দ্বিধা থাকে মনে, তাহলে একটা প্রশ্নের উত্তর দিন, ‘আইটেম কথাটার মানে কী?

একটু সচেতনতার সাথে লক্ষ্য করলে দেখা যায়, কাদের এই আইটেম গান টার্গেট করে । কোন আইটেম গান, শিক্ষিত মধ্যবিত্তের পরিচিত পরিবেশে দৃশ্যায়ন করা হয়না । হয় করা হয় উচ্চবিত্তের বেহায়াপনা হিসেবে, নয়তো মফস্বল শহরের ভেতরে, টং দোকানের সামনে; যেখানে আইটেম আর তার কামার্ত বন্ধুরা সাধারণত পরে থাকে নিম্নবিত্তের পোশাক । এমনকি, নাচের ভঙ্গিমায়ও সেইসব লোকেদের টার্গেট করা হয়, যারা মহিলাদের একটা বাজারে পণ্যের চেয়ে বেশি কিছু ভাবতে পারেনা । আইটেমের চারিদিক ঘিরে থাকে নির্মাণ শ্রমিক, রিকশাওয়ালা বা অটো ড্রাইভারের পোশাক পরিহিতেরা । আপনি হয়ত শিক্ষিত মানুষ হয়ে ভাবতে পারবেন ক্যাটরিনা তো শুধুই অভিনয় করছে, কিন্তু মনে মনে একজন রিকশাওয়ালা হয়ে দেখুন । তার কাছে কী মেসেজ দিতে চান নায়িকারা?

তাই প্রিয়াংকা যখন বলেন, পুরুষ আর নারী সমান, তখন কি সব ক্লাসের মেয়েদের বুঝান নাকি কেবল তার মত উচ্চবিত্ত মহিলাদের । নিম্নবিত্তরা আইটেম গানের আইটেমের মতই পণ্য ?

আমাদের মা-বোনেরা, নয় বছরের শিশুরা কিন্তু এই প্রিয়াংকাদেরই আজকে রোল মডেল বানাতে চান । এজন্যই কি গত দশ বছরে, এদেশের মহিলাদের পোশাকের ক্ষেত্রে বিপ্লব সাধিত হয়ে গেছে? ওড়না তো বলতে গেলে এখন কোন মেয়েই ‘প্রয়োজন’ হিসেবে পরেনা, পরে অতিরিক্ত একটি ফ্যাশনেবল কাপড় হিসেবে । ফিল্মের নায়িকারা যতই উপর উপরে তুলসি পাতা সাজুন, আসলে তারা প্রকাশ্যে, ছেলে ও মেয়েদের উভয়ের কাছেই ‘নারী শুধু পণ্য’ এই মেসেজ দিয়ে যাচ্ছেন । তাই সাত বছরের মেয়ে শিশুটি যখন আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে স্তন মাপে, আর ক্লাস ফাইভের ছেলের দ্বারা শিক্ষিকা অপদস্ত হয়, আমরা আর অবাক হইনা।

আপনি হয়ত ভাবছেন এগুলো শুধুই মুভি, বাস্তবে এর প্রভাব নেই। জেনে রাখুন, একটি রহস্য উপন্যাস যেমন, সুবিচারের মেসেজ দেয় আমাদের অবচেতন মনে, সাহিত্য উপন্যাস মানুষের শ্রেষ্ঠত্বের ছাপ ফেলে, তেমনি এগুলোও নারীদের পণ্য বানিয়ে ফেলছে দিন কে দিন। আমার কথা বিশ্বাস না হলে, নিজ পরিবারের উপর পরীক্ষা করুন। আপনার সন্তান যদি আপনাকে সব বলতে পারে এমন হয়, তাহলে তাকে একটি আইটেম সং দেখতে দিয়ে, সে কী বুঝেছে জিজ্ঞেস করুন। আর যদি সে লজ্জা পায়, তাহলে ধরে নেবেন, হয় সে আপনাকে বন্ধু ভাবেনা, নয়তো এমন কিছু শিখেছে, যা নিজের খুব কাছের বন্ধুকেও বলতে সঙ্কোচ হয় তার ।

এইসব আইটেম গান দেখা থেকে বিরত থাকুন ।  আইটেম গয়ান  আপনাকে  ধীরে ধীরে পর্নোগ্রাফির দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে; আপনি জানতেও পারছেন না ।

এটা বৈজ্ঞানিকভাবে প্রমাণিত যে পৃথিবীর যেকোন স্তন্যপায়ী প্রাণী তথা mammals পুরুষের জন্য, টেস্টোস্টেরেন হরমোনের প্রভাব সহ্য করা কঠিন । এটি আপনাকে পাগল করে তোলে, বুনো হাতির মতই, বাধ্য করে পর্নোগ্রাফি আর  হস্তমৈথুনের মত অশ্লীল বিষয়ে নিজেকে জড়াতে । সাবধান ভাই। আল্লাহ্‌ আমাদের ও আমাদের প্রিয় পরিবারগুলোকে এই ফিতনা থেকে বাঁচার তৌফিক দিন।

(লস্ট মডেস্টি অনুবাদ টিম কর্তৃক অনূদিত)

পড়তে পারেন-

আইটেম সং- https://bit.ly/2x5xMdW

অশনি সংকেত- https://bit.ly/2QoJTLH

শেয়ার করুনঃ