বিসমিল্লাহির রহমানির রহীম।

(প্রথম পর্বের পর) বর্তমান সময়ে বিশ্বজুড়ে যুবকদের যৌনসমস্যা যতোটা বৃদ্ধি পেয়েছে পৃথিবীর ইতিহাসে এর আগে কখনো এরকম হয়নি। ৭জন নেভি চিকিৎসক সহ আরো অনেক বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে লিখিত একটি গবেষণাপত্র [৯,১০] থেকে দেখা যাচ্ছে, ১৪ থেকে ৩৫ শতাংশ পুরুষ ইরেক্টাইল ডিসফাংশন জনিত সমস্যায় আক্রান্ত। যৌনতায় আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছেন এমন পুরুষের সংখ্যা শতকরা ১৬ থেকে ৩৭ জন। এই পুরুষদের কারো কারো বয়স ৪০ বছর বা তার চেয়ে কম , কেউ কেউ ২৫ বছর বয়সী টগবগে যুবক , কেউ কেউ সদ্য কৈশোরে পা দেওয়া টিনেজার!

অনলাইন ফ্রি পর্নোগ্রাফি যুগের পূর্বের (?-২০০৬) বিভিন্ন গবেষণা থেকে দেখা গিয়েছে ৪০ বছর বা এর চেয়ে কম বয়সী পুরুষদের মাত্র ২-৫ শতাংশ পুরুষ ইরেক্টাইল ডিসফাংশনে আক্রান্ত। ৩৫ বছর বা এর চেয়ে কমবয়সী কেউ ইরেক্টাইল ডিসফাংশনে আক্রান্ত এমনটা শোনাই যেতনা। তার মানে গত কয়েক বছরে তরুণ,যুবকদের ইরেক্টাইল ডিসফাংশন  প্রায়  ১০০০% বেড়েছে। এর পেছনে দায়ি কে ?

১) ২৪ টি গবেষণা থেকে দেখা যাচ্ছে পর্নআসক্তি নানা রকম যৌনজটিলতা সৃষ্টি করে, পর্নআসক্তদের  বাস্তব জীবনে যৌনতার মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দিলে তাদের উত্তেজিত হতে বা সার্থক যৌন মিলনের জন্য তৈরি হতে সমস্যা হয়।

২) ৫৫ টিরও বেশি গবেষণা থেকে দেখা যাচ্ছে পর্নআসক্তির কারণে স্বামী স্ত্রীর মধ্যেকার ভালোবাসা কমে যায়, যৌনজীবন নিয়ে দম্পতিরা অসন্তুষ্টি,অতৃপ্তিতে ভোগেন।[১১]

সাম্প্রতিক এক গবেষণা থেকে দেখা যাচ্ছে একদম তরতাজা তরুণরাও যৌনতায় অনাগ্রহ প্রদর্শন করছে! সেই গবেষণাতে দাবি করা হয় পরনোগ্রাফি এই সব তরতাজা তরুণদের যৌনতায় অনাগ্রহের পেছনে দায়ী হতে পারে।[১২]

জাপানের তরুণ তরুণীরা অত্যাধিক পর্নআসক্তির কারণে যৌনতার প্রতি একদমই আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছে । [১৩]

আমেরিকার তরুণরা বিয়েতে আগ্রহ হারিয়ে ফেলছে। এর পেছনে অনেক গুলো কারণ রয়েছে ,যার মধ্যে পর্নআসক্তি অন্যতম বলে বিশেষজ্ঞরা ধারণা করছেন।

পর্নআসক্তি এর বিয়ের ধারণাটাই বদলে ফেলে। বিয়েকে উপস্থাপন করে শুধু কামনা পূরণের মাধ্যম হিসেবে। বিয়ে মানে যে শুধু শারীরিক মিলনের সামাজিক স্বীকৃতি না , বিয়ে মানে দুটি মনের মিলন, সুন্দর পৃথিবীর জন্য হাতে হাত রেখে সংঘবদ্ধ লড়াই, অনেক দায়িত্ব, কর্তব্য পালন এই বেসিক জিনিসটাই ভুলিয়ে দেয় পর্নআসক্তি। [১৪]

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, তরুণরা এটা চিন্তা করছেন যে ইন্টারনেট পর্ন এর মাধ্যমেই তো আমি আমার যৌনাকাঙ্ক্ষা নিবারণ করতে পারছি । তাহলে আমার কী দরকার বিয়ের ঝামেলা পোহানোর! আরেকজনের মানুষের সঙ্গে একই ছাদের নিচে একই বিছানা শেয়ার করা, আরেকজন মানুষের দায়িত্ব নেওয়া।[১৫]

যৌনজীবনের ওপর পর্ন আসক্তি কি বিরূপ পভাব ফেলে সেটা শুনে নেওয়া যাক কয়েকজন বিশেষজ্ঞের মুখ থেকে।

‘ইন্টারনেট পর্ন তরুণদের যৌন ক্ষমতা নষ্ট করে দিচ্ছে। শুরুটা হয় সফটকোর পর্ন এ কম সংবেদনশীল হওয়ার মাধ্যমে, এর পরের ধাপ যৌনতায় আগ্রহ কমে যাওয়া  এবং সবশেষে বীর্যপাত বন্ধ হয়ে যায়’।

“দেখুন, ত্রিশ বছর আগে যখন  কেউ  ইরেক্টাইল ডিস্ফাংশন জনিত সমস্যায় পড়তেন, তখন তা হত মূলত বার্ধক্যজনিত কারণে, সাধারণত ৪০ বছর বয়সের পর। বয়স বাড়ার সাথে সাথে রক্তনালী সংকুচিত হয়ে পড়ে এবং বীর্যপাত কঠিন করে ফেলে। ৩৫ বছরের নিচে কারো এমন বড় ধরণের সমস্যার কথা শোনা যেতনা বললেই চলে। কিন্তু সেটা ছিল ইন্টারনেট পর্নের আগের সময়। এখনকার দিনে অনলাইন মেসেজ বোর্ড ভর্তি থাকে তরুণদের ইরেক্টাইল ডিসফাংশন সংক্রান্ত অভিযোগে। তারা ইরেক্টাইল ডিস্ফাংশনে আক্রান্ত হয়েছেন এই কারণে না যে তাদের কারণ যৌনাঙ্গে সমস্যা, তাদের সমস্যাটা মস্তিষ্কে; যেটা পর্নআসক্তির প্রভাবে বদলে গিয়েছে”।

-ডঃ কার্লো ফরেস্টা,ইটালিয়ান সোসাইটি অফ আন্ড্রোলোজি অ্যান্ড সেক্সুয়াল মেডিসিনের প্রাক্তন সভাপতি।

‘যখন আমি বলি যে পর্ন আমেরিকার যৌন আচরণকে ধ্বংস করছে, আমি মজাও করছি না, বাড়িয়েও বলছি না।  প্রতিনিয়ত আমি দেখতে পাই পর্ন আসক্তি কী গভীর ক্ষত তৈরি করে চলেছে নারী পুরুষের সম্পর্কে। আমি বিশ্বাস করি, পর্নই একমাত্র ও সবচেয়ে বড় স্বাস্থ্যবহির্ভূত কারণ যা সম্পর্কের টানাপোড়েন সৃষ্টি করে। এটি যৌন স্বাস্থ্যের সব দিকেরই ক্ষতি করছে’।

‘…

‘একজন মানুষ যখন পর্ন দেখে আর মাস্টারবেট করে তখন সে যেন নিজেই নিজের পায়ে কুড়োল মারে। পর্দার দৃশ্যের মাধ্যমে উত্তেজিত হওয়ার ফলে ধীরে ধীরে বাস্তবজগতের রক্ত মাংসের নারীদের দ্বারা উত্তেজিত হওয়া তার জন্য অসম্ভব হয়ে দাঁড়ায়, সফল যৌন মিলনের জন্য যতোটুকু সময় উত্তেজিত থাকা দরকার ততোটুকু সময় উত্তেজিত থাকেনা বা তৃপ্তি লাভ করতে পারেনা।

পর্ন হল সেই কালপ্রিট যা আপনার যৌনজীবনের বারোটা বাজিয়ে দেয়’।

‘পর্ন এমন এক ভার্চুয়াল স্বর্গরাজ্যের কথা বলে যা যৌনতায় ভরা যৌনতা আর যৌনতা, শুধু যৌনতা,বিভিন্ন ধরণের যৌনতা আর অসীম সুখ। পর্ন যেটা বলেনা তা হল, একজন ব্যক্তি যতই সেই ফ্যান্টাসি জগতের গভীরে যায়, বাস্তবতা ততই বিপরীত হয়ে দেখা দেয়। পর্ন আসক্তি এর আসক্তদের যৌনক্ষুধা যেমন কমিয়ে দেয়, তেমনি যৌন তৃপ্তি থেকেও দূরে রাখে ’

– ডাঃ হ্যারি ফিস্ক, ক্লিনিক্যাল প্রফেসর, কর্নেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউরোলজি ও রিপ্রোডাকটিভ মেডিসিন। ডাঃ হ্যারি ফিস্ক পুরুষদের স্বাস্থ্য, বিশেষ করে যৌন বিষয়ক রোগনির্ণয় ও চিকিৎসায় অন্যতম পথিকৃৎ। [১৬]

পর্নআসক্ত সঙ্গী তার সঙ্গিনীর প্রতি আকর্ষণ বোধ করছেননা, [১৭] স্বাভাবিক যৌনক্রিয়ায় উত্তেজিত হতে সমস্যা হচ্ছে, যৌনমিলন পানসে মনে হচ্ছে, তৃপ্ত হতে পারছেন না, [১৮] একেবারেই সঙ্গিনীর সঙ্গে অন্তরঙ্গতা থেকে দূরে থাকছেন এরকম অসংখ্য ঘটনা সম্পর্কে আমরা অবগত।[১৯,২০]

পর্নআসক্ত সঙ্গী তার সঙ্গিনীর পোশাক,আশাক,চেহারা,ফিগার,আচার আচরণ নিয়ে খুবই খুঁত খুঁতে হয়ে পড়ে। নীল পর্দার অভিনেত্রীদের সঙ্গে সবসময় নিজের সঙ্গিনীকে তুলনা করেন, আচার আচরণে,কথা বার্তায় সঙ্গিনীকে সেটা জানিয়ে দিতেও দ্বিধাবোধ করেনা। এতে করে সঙ্গিনীর ওপর একটা চাপ তৈরি হয়, পর্দার অভিনেত্রীদেরকে তারা প্রতিদ্বন্দী হিসেবে ধরে নিচ্ছে, তাদের সঙ্গে এক অসম প্রতিযোগিতায় নামছে। স্বামীর সন্তুষ্টির জন্য বা স্বামীকে নিজেদের প্রতি আকর্ষিত করার জন্য চুলের কাটিং,পোশাক আশাক, শরীরের গড়ন, আচার আচরণ সবকিছুই পরিবর্তন করতে হচ্ছে। এনাল সেক্স,ওরাল সেক্সকেও হ্যাঁ বলতে হচ্ছে। কিন্তু তারপরেও স্বামীকে সন্তুষ্ট করা সম্ভব হচ্ছে না।[২১,২২]

স্ত্রীরা নিজেদের ভাবছেন বঞ্চিত,অবহেলিত, প্রতারণার শিকার।বাড়ছে হতাশা, বাড়ছে বিষণ্ণতায় ভোগা ।[২৩,২৪]

চলবে ইনশা আল্লাহ্‌ ……

পড়ুনঃ

প্রথম পর্ব-  https://goo.gl/4oSpTV

রেফারেন্সঃ

[৯] https://goo.gl/9FbhBs

[১০] https://goo.gl/ANeYcd

[১১] https://goo.gl/jnTJpp

[১২]Voon, V., Et Al. (2014). Neural Correlates Of Sexual Cue Reactivity In Individuals With And Without Compulsive Sexual Behaviors, PLoS ONE, 9(7), E102419. Doi:10.1371/Journal.Pone.0102419; Sun, C., Bridges, A., Johnason, J., & Ezzell, M. (2014). Pornography And The Male Sexual Script: An Analysis  Of Consumption And Sexual Relations. Archives Of Sexual Behavior, 45(4), 1-12. Doi:10.1007/S10508-014-0391-2; Kalman, T. P., (2008). Clinical Encounters With Internet Pornography, Journal Of The American Academy Of Psychoanalysis And Dynamic Psychiatry, 36(4), 593-618. Doi:10.1521/Jaap.2008.36.4.593

[১৩] https://goo.gl/W25Fs5

[১৪] Dolf Zillmann, “Influence of unrestrained access to erotica on adolescents’ and young adults’ dispositions toward sexuality,”Journal of Adolescent Health27 (Aug. 2000): 41-44.

[১৫]https://goo.gl/2M62my

[১৬]  https://goo.gl/uBA5iy

[১৭]  James B. Weaver, Jonathan L. Masland, and Dolf Zillmann, “Effects of Erotica on Young Men’s Aesthetic Perception of Their Female Sexual Partners,” Perceptual and Motor Skills 58 (1984): 929-930.]

[১৮]Dolf Zillmann and Jennings Bryant, “Pornography’s Impact on Sexual Satisfaction,” Journal of Applied Social Psychology 18 (1988): 438–453.

[১৯] https://goo.gl/Xo6zN1

[২০] https://goo.gl/RDsCce

[২১] https://goo.gl/6MuuhK

[২২]  https://goo.gl/suG98N

[২৩]Jennifer P. Schneider, “Effects of cybersex addiction on the family: Results of a survey,”Sexual Addiction and Compulsivity7

(2000): 31-58

[২৪] https://goo.gl/8WuhdK

শেয়ার করুনঃ