বিসমিল্লাহির রহমানীর রহীম ।

সত্যের একটা বৈশিষ্ট্য হল যে সত্য সবসময় উৎকৃষ্ট ও সঠিক বিষয়ের পক্ষেই থাকে , সত্য কখনোই কোন ভুল ও নিকৃষ্টের পক্ষ নেয় না। এইজন্যই মূলত যারা সমাজে নিকৃষ্ট কর্মকান্ডের প্রচার করতে যায় তখন তারা মূলত মিথ্যার আশ্ৰয়ই নেয়। ইতিহাস তারই সাক্ষী |

তাই স্বাভাবিকভাবেই সমকামী ও নাস্তিকরা তাদের হীন স্বাৰ্থ চরিতার্থ করার জন্য অনেক মিথ্যার আশ্রয় নিয়েছে মুক্তমনার প্রতিষ্ঠাতা নাস্তিক ব্লগার অভিজিত রায় তার সমকামিতা একটি বৈজ্ঞানিক এবং সমাজ-মনস্তাত্ত্বিক অনুসন্ধান বইয়ে বিজ্ঞান নিয়ে অনেক মিথ্যাচার করেছেন । এই বইয়ে তিনি সমকামিতা সম্পর্কিত পুরনো কিছু বৈজ্ঞানিক গবেষণার কথা উল্লেখ করেছেন যা কিনা পরবর্তীতে বিজ্ঞানীরা ভুল প্রমাণ করেছেন। আমি এখানে সমকামীদের প্রচারিত প্রধান কিছু ভ্রান্ত বৈজ্ঞানিক দাবির কথা তুলে ধরব, ইনশাআল্লাহ |

ভ্রান্ত দাবি-০১: “একজন মানুষ সমকামী হয়ে জন্মাতে পারে”

সমকামীরা তাদের হীন দাবি বাস্তবায়ন করার জন্য কয়েকজন বিজ্ঞানীর ভুল রিসার্চের আশ্রয় নিয়েছিল এবং এখনো নিচ্ছে। যেমন নাস্তিকদের ব্লগ মুক্তমনার প্রতিষ্ঠাতা অভিজিত রায় তার সমকামিতা একটি বৈজ্ঞানিক এবং সমাজ-মনস্তাত্ত্বিক অনুসন্ধান বইয়ে বিজ্ঞান নিয়ে উল্টা-পাল্টা ও ভুল কথা বলেছেন। জন্মগতভাবে সমকামী হবার সম্ভাবনার কথা বলতে গিয়ে অভিজিত রায় বলেছেন–

” আরেকটি ইঙ্গিত পাওয়া গেছে Dean Hamer এর সাম্প্রতিক গবেষণা থেকে ডিন হ্যামার তার গবেষণায় আমাদের ক্রোমোজোমের যে অংশটি (Xq28) সমকামিতা ত্বরান্বিত করে তা শনাক্ত করতে সমর্থ হয়েছেন” । [১]

তিনি শুরুতেই মিথ্যা বলেছেন। কারণ Dean Hamer এর এই ভুল গবেষণা সাম্প্রতিক না । এটা প্রায় ২১ বছরের পুরনো গবেষণা উনি কি উনার বই কপি-পেস্ট করে লিখেছেন নাকি? সাম্প্রতিক গবেষণা বলে আসলে তিনি পাঠককে আকর্ষণই করতে চেয়েছেন।

কেউ জন্মগতভাবে সমকামী হতে পারে না:

জন্মগতভাবে সমকামী হওয়া যায়- এই দাবির পক্ষে যার গবেষণাকে শক্তিশালী প্রমাণ হিসেবে পেশ করার চেষ্টা করা হয় তিনি হলেন Dr. Dean Hamer  |

১৯৯৩ সালে বিখ্যাত সায়েন্টিফিক ম্যাগাজিন’Science Dr. Dean Hamer এর সমকামীতা নিয়ে স্টাডির বিষয়ে এক আর্টিকেল  প্রকাশ করে । সে আর্টিকেলে বলা হয় যে সমকামীতা বৈশিষ্ট্যের জন্য হয়তো কোন জিন দায়ী হতে পারে। ব্যাস,  সমকামীরা তো খুশিতে পাগল হয়ে গেল এই স্টাডি পড়ে।আর সমকামীদের পক্ষের মিডিয়া মাধ্যমগুলো এটা প্রমোট করা শুরু করল।

প্রথমে শুরু করলো  National Public Radio, এরপর Newsweek আরো রঙচং মেখে ‘Gay Gene’’  শিরোনামে  লিখা  প্রকাশ করল,এরপর দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল আরো রংচং লাগিয়ে খবরটা ছড়িয়ে দিল । অসৎ মিডিয়ার মত খারাপ জিনিস কমই আছে | Dr. Dean Hamer সাহেবকে মিডিয়া’Gay gene এর জনক বানিয়ে ফেলেছিল এরা । আসলে Dr. Dean Hamer এর গবেষণাকে ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে।

অবশ্য পরে Dr. Dean Hamer এই বলে তার অবস্থান পরিস্কার করেছেন—–

” আমরা (গবেষণার) বংশবিবরণ থেকে যে simple Mendelian inheritence পাব বলে ভেবেছিলাম তা পাইনি। আসলে, আমরা একটাও সিঙ্গেল ফ্যামিলিতে হোমোসেক্সুয়ালিটি সুস্পষ্টভাবে কখনোও পাইনি যা কিনা মেন্ডেল তার peaplant এর গবেষণায় পেয়েছিলেন” | [২]

Dr. Dean Hamer এর গবেষণাকে অনেক বিজ্ঞানী ভুল প্রমাণ করেছেন।আমি কয়েকটা সফল রিসার্চের কথা বলছি—

১) মানবজাতি জেনেটিক্সের ফিল্ডে এক বিরাট বড় অর্জন করে যখন তারা”The Human Genome প্রজেক্ট কমপ্লিট করে|এই প্রজেক্ট শুরু হয়েছিল ১৯৯০ সালে এবং শেষ হয় ২০০৩ সালে। এই প্রজেক্টের মাধ্যমে মানুষের জেনেটিক কোডের সিকুয়েন্সগুলোকে ম্যাপিং করার উদ্দেশ্যে এটি তৈরী করা হয় | [৩]  কিন্তু এই প্রজেক্ট দিয়ে তথাকথিত “Gay gene কে আইডেন্টিফাই করা সম্ভব হয়নি।

২) X ও Y হল মানুষের সেক্স ক্রোমোসোম | X ক্রোমোসোম ১৫৩ মিলিয়ন base pairs এবং ১১৬৮টি জিন ধারণ করে I X ক্রোমোসোমের থেকে ছোট ক্রোমোসোম Y তে আছে ৫০ মিলিয়ন base pairs এবং ২৫১টি জিন | এই ক্রোমোসোমগুলোকে নিয়ে গবেষণা করেছে Baylor University,The Max Planck University The Sanger Institue, Washington University fift:RiffTRUCTE & 25 of TI-55 & 3 & WICW; foil.5 WBi Gay gene এর অস্তিত্ব X ক্রোমোসোমেও পায়নি, Y ক্রোমোসোমেও পায়নি। [৪]

৩) Gay gene এর স্রষ্টা বলা হয় যাকে সেই Dean Hamer ‘Gay gene’  এর কথা অস্বীকার করেছেন ।  Scientific American Magazine তাকে যখন জিজ্ঞেস করে যে সমকামীতা কি বায়োলজিতে solely rooted? তখন তিনি বলেছিলেন—

“Absolutely not.From twin studies, we already know that half or more of the variability in sexual orientation is not inherited.Our studies try to pinpoint the genetic factors … not negate the psychosocial factors.” [৫]

৪) Dr. George Rice নামের আরেকজন বিজ্ঞানী পরবতীতে ডিন হ্যামারের মত একই গবেষণা করেছিল।কিন্তু Dr. George এই গবেষণা থেকে কোন পজিটিভ ফলাফল লাভ করতে পারেননি। Dr. George Rice তার গবেষণার ফলাফল সম্পর্কে বলেন—

” আমাদের গবেষণার তথ্য উপাত্ত এমন কোন জীনের উপস্থিতিকে সমর্থন করে না যা কিনা Xq28 পজিশন দ্বারা sexual orientation কে শক্তিশালীভাবে প্রভাবিত করতে পারে|” [৬]

৫) Dr. Neil Whitehead বায়োকেমেস্ট্রির পি এইচ ডি প্রাপ্ত একজন অধ্যাপক। উনি এই বিষয় নিয়ে প্রচুর গবেষণা করেছেন যা বিজ্ঞান মহলে সমাদৃত হয়েছে। উনি জন্মগতভাবে সমকামী হওয়ার সম্ভাবনাকে উড়িয়ে দিয়ে বলেন,

“সমকামিতা জন্মগত নয়, জিনেটিক দ্বারা নির্ধারিতও নয় এবং সমকামিতা অপরিবর্তনশীলও নয়। ”  [৭]

এছাড়া সমকামীরা Drs. J Michael Bailey, Richard C. Pillard এর পুরোনো Twin Studies রিসার্চকেও দাবি প্রমানে ব্যবহার করে । অথচ এই  স্টাডি উল্টো আরো প্রমাণ করে যে সমকামিতা জন্মগত নয়। আসলে শুধু জীন দ্বারা মানুষের যৌনতার ভূৎপত্তি নির্ধারত হয় না। কেউ জন্মগতভাবে Heterosexual ও না আবার কেউ জন্মগতভাবে Homosexualও না|বরং মানুষ যৌন আচরণ করতে শিখে পরিবেশ থেকে, বায়োলজিরও ভূমিকা আছে এইক্ষেত্রে |” [৭]

[পরে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে ইনশা আল্লাহ্‌ । তবে এই কথা সত্য যে সেক্সুয়াল ওরিয়েন্টেশন কিভাবে নির্ধারিত হয় তা নিয়ে এখনোবিজ্ঞানীরা একমত হতে পারেননি। তারা মনে করেন যে জেনিটিক্যাল এবং এনভাইরনমেন্টাল ফ্যাক্টর উভয়ই এইক্ষেত্রে ভূমিকা পালন করে I Epigenetics এর দ্বারা এখন সমকামিতার ব্যাখ্যাটা আমার পছন্দের সময়ের অভাবে এটা নিয়ে আলোচনা করতে পারলাম না|এতটুকু বলা যায় যে,Epigenetics এ এনভাইরনমেন্টাল ফ্যাক্টরগুলোর কথা আসবে। আমি মনে করি কেউ জন্মগত সমকামী হলেও আগুমেন্টটা সমকামিতার পক্ষে যায় নাকারণ অনেকে ফিজিক্যাল সাইকোলজিক্যাল ডিসঅর্ডার নিয়ে

জন্মাতে পারে ফিজিক্যাল সাইকোলজিক্যাল ডিসঅর্ডার নিয়ে কারো জন্ম হতে পারলে সেক্সুয়াল ডিসঅর্ডার নিয়েও অনেকের জন্ম হতে পারে ডিসঅর্ডারকে ডিসঅর্ডার হিসেবে স্বীকৃতি না দেওয়াটাই সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে]



লিখেছেন-  Farhad Hossain

লেখক Faridpur Medical College এ অধ্যয়নরত

চলবে ইনশা আল্লাহ্‌ ……

#stand_aggainst_Lgbt_propaganda
#মিথ্যায়_বসত

রেফারেন্স-

১) www.narth.org/docs/istheregene.html

২) Hamer and copeland page-104

৩) How it works, issue 49

৪) www.trueorigin.org/gaygene01.asp

৫) New Evidence of a gay gene by Anastasia Touefexis, Time, November 13, 1995, vol. 146, issue 20,p.95

95

৬) George Rice, et al., “Male Homosexuality: Absence of Linkage to Microsatellite Markers at Xq28,” Science, Vol. 284, p. 667.

৭) Neil and Briar Whitehead,My Genes Made me Do it!,page 9

শেয়ার করুনঃ