বিসমিল্লাহির রহমানীর রহীম।

 

হস্তমৈথুন  আপনাকে ‘চান্দু’ বানাবে:  

চুল পড়া নিয়ে ছেলেরা যে পরিমাণ টেনশান করে মেয়েরা তার এককানাকড়িও করে না বোধহয় । আমাদের সমাজের এখন যে অবস্থা তাতে মাথায় চুল কম ছেলেদের বিয়ে হতে বেশ ভালো পরিমাণ সমস্যা হয় । হাই স্যালারির জব, ঢাকায় এপার্টমেন্ট, গাড়ী সব ঠিক ঠাক থাকার পরেও মাথায় চুল কম থাকার কারণে বিয়ে ভেঙ্গে গেছে এরকম খবর মাঝে মাঝেই শোনা যায় । তো চুল পড়ার অনেক গুলো কারণ রয়েছে । সেই কারণগুলোর মধ্যে যে কারণটা নিয়ে আমরা আজকে গ্যাঁজাবো সেটা হচ্ছে মাস্টারবেশন

.

New York Times Health এর ভাষ্যমতে মানবদেহের হরমোনের পরিবর্তন চুল পড়ার অন্যতম কারণ । এবং দুঃখজনক ভাবে মাস্টারবেশনের মাধ্যমে খুব দ্রুত এবং ব্যাপক আকারে মানবদেহের হরমোন লেভেল পরিবর্তিত হয় যখন আপনি মাস্টারবেট করতে থাকবেন তখন আপনার দেহে খুবই দরকারী কিছু নিউরোকেমিক্যালস যেমন Testosterone, DHEA , HGH এগুলোর মাত্রা কমে যেতে থাকবে । আপনার দেহে কিছু ক্ষতিকর হরমোণ যেমন Prolactin, Cortisol এবং Dihydrotestosterone (DHT) খুব বেশী মাত্রায় তৈরি হবে । এর ব্যাটা Dihydrotestosterone (DHT) আপনার চুল পড়ার জন্য দায়ী ।

.

American Hair Loss Association এর তথ্য অনুসারে, DHT Hair follicles এ আক্রমণ চালিয়ে এর ব্যাপক ক্ষতিসাধন করবে , Hair roots এর প্রয়োজনীয় পুষ্টি সরবরাহের কাজে বাগড়া দিবে , Sebaceious gland কে স্টিমুলেট করে মাথার ত্বককে তৈলাক্ত করে তুলবে ।পরিনতিতে চুল ঝরে যাবে । [১,২,৩,৪]

 হস্তমৈথুনের কারণে নিজেকে অকর্মণ্য মনে হবেঃ

প্রথমে কিছু ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা নিয়ে কথা বলা যাক। ব্যক্তিগত জীবনে আমি একজন কর্মব্যস্ত মানুষ। প্রতিদিন আমাকে নানা ধরনে কাজ করতে হয়। কিন্তু আমি যখন হস্তমৈথুনে আসক্ত ছিলাম , আমি সারা দিনে খুব কম কাজই ঠিকভাবে করতে পেরেছি।

.

আসলে হস্তমৈথুনের ফলে আমার স্বাভাবিক হতে কয়েকদিন লেগে যেত।

আমি অফিসে যেতাম । আমার সামনে কাজ জমে থাকতো। ভাবতাম কাজ শুরু করি। আবার পরক্ষণেই ভাবতাম, ধুর! যা হয় হবে, এখন কিছু করতে পারবো না।

তারপর আবার অপরাধবোধ কাজ করত কিন্তু কাজ শুরু করার জন্য মানসিক জোর , ইচ্ছা কিছুই পেতাম না।

এভাবে শুধু পিছিয়েই যেতাম।

আসলে অফিস তো অনেক পরের কথা , আমি  বাড়ির সাধারণ কাজ যেমন থালাবাসন ধোয়া, কাপড় ধোয়া , বাজার করা, বারিঘর পরিষ্কার করা – এগুলোও ঠিকমত করতাম না।

হস্তমৈথুন বাদ দেয়ার পর থেকে আমি নিজের মনের ভিতর থেকেই অন্য রকম একটা উৎসাহ পাওয়া শুরু করলাম। কাজকে আগের মতো আর বিরক্ত লাগতো না । আগে যেখানে কাজের পাহাড় জমে থাকতো ,সেখানে নিয়মিত কাজ করার কারণে আমার এরকম কোন আর চাপই থাকতো না ।[৫]

 

 হস্তমৈথুন আপনার আত্মমর্যাদাবোধ কমিয়ে দিবেঃ

আমরা আমাদের লেখার মূলত হস্তমৈথুনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া তুলে ধরেছি। হস্তমৈথুনের কারণে কি কি হয় মূলত? – আপনার নিজের আচরণের উপর নিয়ন্ত্রণ থাকে না, কাজে আগ্রহ জাগে না, অস্থিরতায় ভোগেন, স্বাভাবিক যৌন সম্পর্কের প্রতি থাকে না , আত্মপ্রত্যয় থাকে না। তো এত কিছুর পরেও আশা করেন যে আপনার কোন আত্মমর্যাদাবোধ বলে কিছু থাকবে?

.

হস্তমৈথুনের কারণে কোন নারীকেই আপনি সম্মানের চোখে দেখতে পারবেন নাঃ

যদি ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতার কথা বলি , তাহলে এক কথায় বলতে হয় যে , পর্নোগ্রাফিতে নারীদের দেখে ভাবতাম যে বাস্তবিক অর্থে তারা মনে হয় আসলেই এরকম। কোন নারীকে দেখলেই আমার এই  চিন্তাধারার সাথে মিলাতে চেষ্টা করতাম।

.

আসলে পর্নোগ্রাফি আর হস্তমৈথুনের কারণে কি হয় শেষ পর্যন্ত-

১)আপনি মূলত পর্নোগ্রাফি কেন্দ্রিক একটি কল্পনার জগতে বাস করবেন ।

২) পর্নোগ্রাফিতে মেয়েরা যেরকম করে, আপনার মনে হবে আসলেই মেয়েরা সেরকম । অথচ আপনি এটা বুঝতে পারবেন না যে পর্নোগ্রাফিতে যারা থাকে আসলে টাকার বিনিমিয়ে এরকম করে।

৩) আপনি ভাববেন যে পর্নোগ্রাফিতে অভিনয় করা পুরুষরাই ‘ আসল পুরুষ’ আর সেরকম হতে না পারলে আপনার কোন দাম নেই।

৪) আপনি মেয়েদেরকে একটা যৌনাবেদনময়ী বস্তু ছাড়া কিছুই ভাববেন না। এমন কি আপনার নিজের পরিবারের মেয়েদের নিয়েও এই ধরনের চিন্তা করতে আটকাবে না আপনার।

৫) সত্যিকার অর্থে আপনি নারীদেরকে একজন মানুষ হিসেবেই ভাববেন না।

চিন্তা করুন তো আপনি নিজেও তো একদিন বাবা হবেন। যাকে আপনি পর্নোগ্রাফিতে দেখছেন সে আপনার মেয়ে হলে আপনার কেমন লাগতো?

 

হস্তমৈথুনের কারণে আপনি স্বাভাবিক যৌনক্রিয়ার প্রতি আগ্রহ হারাতে থাকবেনঃ

পর্নভিডিও দেখলে আপনার মানসিক বিকাশ , চিন্তাধারা সবই সেটা কেন্দ্রিক হবে। আপনি যখন কোন নারীকে দেখবেন , তখন আপনার মনের মাঝে সেই পর্নভিডিও গুলোতে যা দেখেন ,সেটাই মনে হতে থাকবে।  আর একটা পর্নভিডিও তে যা দেখানো হয় সেটা কিন্তু স্বাভাবিক কিছু না।

একজন মানুষের মনে স্বাভাবিক ভাবেই যৌন কার্যাবলী সম্পর্কিত চিন্তা আসতে পারে। এটা খারাপ কিছু না । কিন্তু আপনি সারাদিন শুধু এসব চিন্তাই করবেন সেটা অবশ্যই দোষের। আর এই চিন্তাধারার সর্বশেষ ধাপ হচ্ছে , হস্তমৈথুন।আসলে এটা আপনার জন্য সহজলভ্য একটা উপায় হয়ে দাঁড়ায়। আর এর ফলে আপনি স্বাভাবিক যৌন ক্রিয়া থেকে আগ্রহ হারাতে থাকবেন । হস্তমৈথুনকেই কাঙ্ক্ষিত জিনিস মনে হবে।

.

সুগঠিত মাংসপেশির জন্য হস্তমৈথুন বাদ দিনঃ

আপনি কোন শরীরচর্চাবিদকে জিজ্ঞাসা করে দেখতে পারেন , নিয়মিত শরীরচর্চার পাশাপাশি হস্তমৈথুন করা থেকেও তাদের বিরত থাকতে বলা হয়।টেস্টোস্টেরন  হরমোন সুগঠিত মাংসপেশির জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আর সেই হরমোন যদি  আপনি মাস্টারবেট করে  ক্রমশ শেষ করে ফেলেন ,তাহলে আপনার শরীর কীভাবে সুগঠিত থাকবে?  একজন পুরুষের শরীর হবে  সুগঠিত, স্টীলের মতো পেটানো,কঠিন;মেয়েদের মতো লতানো নরম- নমনীয় না।

অন্যদিকে মেয়েরাও স্বভাবতই সুগঠিত পুরুষদের প্রতিই আকৃষ্ট হয়। [৬,৭]

( বিস্তারিত আসছে ইনশা আল্লাহ্‌ …)

হস্তমৈথুনের কারণে আপনার ক্রমাগত পিঠ ব্যাথা হতে পারেঃ

এখনকার পুরুষদের মাঝে পিঠে তীব্র ব্যাথা হওয়ার কথা প্রায়ই শোনা  যায়। এরফলে চাকুরি বা পড়ার জায়গা বা কোন কাজেই ঠিকমতো বসে থাকা কষ্টকর হয়ে পড়ে।

শুনতে অবাক লাগলেও এটা সত্যি যে এখানেও টেস্টোস্টেরনের পরিমাণ কমে যাওয়াটা একটা ভূমিকা রাখে।

.

দেখা যায় যে , যখন টেস্টোস্টেরনের পরিমাণ কম থাকে তখন ব্যাথা অনেক তীব্র হয় । আবার যখন টেস্টোস্টেরনের পরিমাণ স্বাভাবিক হয়ে যায়, তখন এই ব্যাথা কমে যায় বা দূর হয়ে যায়।

হস্তমৈথুন আপনার পুরুষত্ব কমিয়ে দেয়ঃ

দেখুন, প্রতিটা মানুষই একটা সুখী দাম্পত্য জীবন চায়। আর এক্ষেত্রে সঠিক যৌন জীবনও একটা গুরুত্বপূর্ণ অংশ ।আর হস্তমৈথুন করে করে আপনি সেই সুযোগ দিন দিন দূরে সরিয়ে দিচ্ছেন। পর্নোগ্রাফি আর হস্তমৈথুনের মাধ্যমে আপনি যেমন মানসিক ভাবেও অসুস্থ হয়ে যাচ্ছেন, তেমনি শারীরিকভাবেও অক্ষম হয়ে পড়ছেন দিনদিন। আপনি যদি দাম্পত্য জীবনে উপভোগ করতে চান, তাহলে এই মুহূর্তে পর্নোগ্রাফি আর হস্তমৈথুন – এই দুইটা জিনিসকেই ‘না’ বলুন।

.

 হস্তমৈথুন বাদ দিলে আপনার ঘুম ভালো হবেঃ

ঘুম আমাদের শরীরের জন্য অপরিহার্য একটি জিনিস। আপনার ঘুম ঠিক মতো হচ্ছে না মানে আপনার শরীর পুরোপুরি সুস্থ না। অনিদ্রা আমাদের কাজ করার ক্ষমতা কমিয়ে দেয়।

ঘুম ঠিকমতো না হলে আপনি কোন কাজই ঠিকমতো করতে পারবেন না। আলস্য, বিরক্তি আপনাকে ঘিরে থাকবে।

.

আপনাদের মনে হতে পারে, আলোচনা করি হস্তমৈথুন নিয়ে, এখানে অনিদ্রা-সুনিদ্রার কি সম্পর্ক?

হ্যা, আপনার ভালো ঘুমের জন্য টেস্টোস্টেরনের ভূমিকা আছে। আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকেই বলি, হস্তমৈথুন বাদ দেওয়ার পরে, আমার অনিদ্রা ধীরে ধীরে দূর হতে লাগলো। ঘুম থেকে উঠার পর আমার মাঝে কোন ক্লান্তিভাব থাকতো না। আগে মনে হত,  আরও শুয়ে থাকি। এখন আর সেটা নেই। [৮]

.

 প্রস্টেট ক্যান্সারের ঝুঁকিঃ

প্রস্টেট ক্যান্সার বা প্রস্টেট গ্রন্থিতে নানা রকম সমস্যা হয়েছে এমন রোগীর সংখ্যা দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।এর জন্য দায়ী প্রধানত হস্তমৈথুন  ।

আমরা আবার অনেকেই উল্টা ভ্রান্ত ধারণা নিয়ে আছি যে , মাস্টারবেশনই  প্রস্টেট ক্যান্সার রোধ করে।

আচ্ছা এ ব্যাপারে তর্কবিতর্ক বাদ দিয়ে দেখি গবেষণার ফলাফল কি। তাহলেই সন্দেহ দূর হবে ইনশা আল্লাহ্‌ ।

Polyxeni Dimitropoulou (PhD),Rosalind Eeles(PhD, FRCP),এবং Kenneth R. Muir (PhD) ৮৪০ জন মানুষের উপর গবেষণা করেন । তারা ৮৪০ জন মানুষের যাবতীয় যৌন তথ্য সংগ্রহ করেন। এদের মাঝে অর্ধেক প্রস্টেট ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছে ৬০ বছর বয়সের মাঝে, বাকি অর্ধেক হয় নি।

তাদের এই গবেষণার ফলাফল ছিল, আশ্চর্যজনক।

“স্বাভাবিক যৌনক্রিয়া প্রস্টেট ক্যান্সারের ঝুঁকিকে প্রভাবিত করে না, কিন্তু হস্তমৈথুন  করে। ২০ থেকে ৩০ বছর বয়সের মাঝে হস্তমৈথুন  প্রস্টেট ক্যান্সারের ঝুঁকিকে বাড়িয়ে দেয়। এ বয়সে যারা সপ্তাহে ২-৭ বার হস্তমৈথুন  করে তাদের ৬০ বছর বয়সে প্রস্টেট ক্যান্সারে আক্রান্ত হবার ঝুঁকি ৭৯% বেশি, যারা মাসে একবারেরও কম হস্তমৈথুন  করে তাদের থেকে।  [৯,১০]

প্রস্টেট ক্যান্সারের সঙ্গে সঙ্গে  হস্তমৈথুন ব্রেস্ট(স্তন) ক্যান্সারের ঝুঁকিও বাড়িয়ে দেয়।

[১১]

.

 প্রকৃত পুরুষ হস্তমৈথুনে আসক্ত থাকে নাঃ

শুধুমাত্র ছেলে হিসেবে জন্মালেই তাকে পুরুষ বলা যায় না। একজন সত্যিকারের পুরুষের আচার-আচরণ, কাজ- কর্ম সব কিছুই হবে সত্যিকারের পুরুষের মতো।

.

আপনি নিজেই একটু চিন্তা করুন- একজন পর্নোগ্রাফি আসক্ত , নিয়মিত হস্তমৈথুন করে, ঠিকমত কোন কাজ করে না, কারও সাথে ভালোভাবে মিশে না- এরকম কাউকে কি আপনি মন থেকে পুরুষ ভাবতে পারবেন। আমি নিশ্চিত যে, আপনি মুখে বলতে না পারলেও মন থেকে এ ধরনের মানুষকে পছন্দ করতে পারবেন না। তো আপনি কীভাবে আশা করেন যে , এই কাজগুলি আপনি করলেও আপনার সাথে অন্যরা ব্যতিক্রম আচরণ করবে?

একজন পুরুষ তার জীবনের সব দিক দিয়েই আত্মতৃপ্ত থাকে। আপনি কি চান না যে আপনিও তাদের একজন হতে?

.

 আপনার সুন্দর জীবনঃ

আগের লিখাগুলোতে তো নানা ধরনের বৈজ্ঞানিক তথ্য-উপাত্ত দিয়ে  হস্তমৈথুনের কুফল তুলে ধরেছি, এখন শুধু নিজের যুক্তির উপর ভিত্তি করে কিছু আলোচনা করি।

একটা মানুষ আসলে জীবনে কি চায়? অবশ্যই, সুখী-সুন্দর একটা জীবন।

একটা পুরুষের ঘরে ও ঘরের বাইরে নানা ধরনের ভূমিকা পালন করতে হয়। জীবনের সুখ-শান্তিও আসলে এই ভূমিকার উপর নির্ভরশীল। ভূমিকা মানে শুধু এই কাজ করতে হবে – তা না, আপনি এই কাজগুলো কত ভাল ভাবে সম্পাদন করছে সেটা।

.

আর, আপনি যেখানে কোন কাজে মনোযোগ দিতে পারেন না, আপনার নিজের কাজই ঠিকমত করেন না, সেখানে আপনি অন্যের প্রতি দায়িত্ব কিভাবে পালন করবেন?

আমার নিজের কথাই বলি। যখন থেকে হস্তমৈথুন বাদ দিলাম, আমার নিজের জীবনই পাল্টে গেল। আমি আগের থেকে অনেক বেশি সুখী এখন। কারণ আমি শুধু একা না, আমার আশেপাশের সবাইকে নিয়েই এখন সুখে আছি। আমি আগের থেকে মন খুলে হাসি, সবার সাথে প্রাণবন্তভাবে মিশি। জীবনে সুখী হতে কি আরও বেশি কিছু দরকার?

শুধুমাত্র অল্প কিছু সময়ের বিকৃতরুচির আনন্দের জন্য অনেক আনন্দময় জীবনটাকে নষ্ট করার কোন মানেই নেই।

এতো এতো ক্ষতিকর দিক থাকার পরেও কেন হস্তমৈথুনকে উপকারী হিসেবে উপস্থাপন করা হয়? কেন অনেক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকেরাও এটাকে ক্ষতিকর মনে করেননা? উত্তর পেতে হলে অপেক্ষা করতে হবে আরো কিছুটা সময়।

(চলবে ইনশাআল্লাহ্‌…)

মূল লিখাটিঃ https://tinyurl.com/y76a7cna

(লস্ট মডেস্টি অনুবাদ টিম কর্তৃক অনূদিত)

পড়ুনঃ

চোরাবালি প্রথম পর্ব – https://bit.ly/2ObItTt
চোরাবালি দ্বিতীয় পর্ব – https://bit.ly/2Qm0j7D
চোরাবালি তৃতীয় পর্ব – https://bit.ly/2p0HR8l
চোরাবালি চতুর্থ পর্ব – https://bit.ly/2QoRtGb
চোরাবালি পঞ্চম পর্ব- https://bit.ly/2Nzoh0M
চোরাবালি ষষ্ঠ পর্ব- https://bit.ly/2QocEIA
চোরাবালি অষ্টম পর্ব- https://bit.ly/2NAhrbd
মাস্টারবেশন কী মাসলগ্রোথ এবং এথলেটিক পারফরম্যান্সের ক্ষতি করে?- https://bit.ly/2NzycUa
মিথ্যের শেকল যতো- https://bit.ly/2QpkT7f
সমকামিতা এবং হস্তমৈথুন আদিম মানুষের মধ্যে বিরল!- https://bit.ly/2CQOOT2

রেফারেন্সঃ

[১] https://goo.gl/3aV9uZ

[২] https://goo.gl/DH2sJk

[৩] https://goo.gl/IFTCMQ

[৪] https://goo.gl/rR6co6

[৫] https://goo.gl/ECU3e2

[৬] https://goo.gl/BLgsOz

[৭] https://goo.gl/3aV9uZ

[৮] https://goo.gl/580zSg

[৯] Dimitropoulou, P., Lophatananon, A., Easton, D., Pocock, R., Dearnaley, D. P., Guy, M., Edwards, S., O’Brien, L., Hall, A., Wilkinson, R., The UK Genetic Prostate Cancer Study Collaborators, British Association of Urological Surgeons Section of Oncology, Eeles, R. and Muir, K. R. (2009), Sexual activity and prostate cancer risk in men diagnosed at a younger age. BJU International, 103: 178–185. doi: 10.1111/j.1464-410X.2008.08030.x

[১০] https://www.ncbi.nlm.nih.gov/pubmed/3066144

[১১] Le MG, Bachelot A, Hill C. Characteristics of reproductive life and risk of breast cancer in a case-control study of young nulliparous women. Journal of Clinical Epidemiology 1989;42:1227–33

শেয়ার করুনঃ